ইদানীং সব চাইতে বড় সমস্যা যেটি হচ্ছে তা হলো অনেককেই বয়সের তুলনায় বেশি বয়স্ক লাগে। এছাড়াও বয়স হয়ে গেলে তো অবশ্যই তার ছাপ পড়ে দেহ ও চেহারায়। এই জিনিসটি বেশি দেখা যায় ছেলেদের মধ্যে। কাজের চাপ, মানসিক চাপ এবং দেহের সঠিক যত্ন না নেয়ার ফলে অনেক কম বয়সী ছেলেকেও বুড়িয়ে যেতে দেখা যাক দ্রুত।
বয়স কম দেখাতে ছেলেরা করতে পারেন যে ১২ টি কাজ
একটু বয়স হয়ে গেলে অনেকেই সেই বয়স ঢাকার অনেক চেষ্টা করেন। ছেলেরাও এর থেকে পিছিয়ে নেই একেবারেই। তারাও চান তাদের একটু কম বয়সী দেখাক। আর এজন্য ছেলেরা যে কাজগুলো করতে পারেন তার একটি তালিকা দেখে নিতে পারেন।
চশমার পরিবর্তে কন্টাক লেন্স ব্যবহার করুনঃ 
যারা চোখের সমস্যার জন্য চশমা ব্যবহার করেন তারা চশমা ব্যবহার না করে কন্টাক লেন্স ব্যবহার করুন। কারণ চশমা ব্যবহার করলে একটু বেশি ভারিক্কী ও বয়স্ক দেখায় যে কাউকেই।
সানগ্লাসের সঠিক ব্যবহার শিখুনঃ 
সানগ্লাস একজন মানুষকে স্টাইলিশ করে দেয়ার পাশাপাশি বয়স কমিয়ে দেয়ার ক্ষমতা রাখে। আপনার প্রয়োজন নিজের চেহারার সাথে মানানসই সানগ্লাসের।
গলার ভাঁজ ঢেকে ফেলুন দাঁড়িতেঃ 
একটু বয়স হয়ে গেলে গলায় ভাঁজ পরে যার কারণে অনেক বেশি বয়স্ক মনে হয় ছেলেদের। এই সমস্যা দূর করতে কোনো স্টাইলিশ দাঁড়ির ছাঁট রাখুন। এতে গলার ভাঁজ ঢাকা পরে যাবে।
চুলের যত্নে কাজ করুনঃ 
চুলের যত্ন সম্পর্কে সতর্ক হয়ে যান। চুল পড়া রোধে চুলের যত্ন নিন। চুলকে স্টাইলিশ রাখতে প্রয়োজনীয় প্রোডাক্ট ব্যবহার করুন। চুল পড়ে টাক হয়ে গেলে অনেক বেশি বয়স্ক দেখাবে।
চুলের স্টাইলে পরিবর্তন আনুনঃ 
বয়স হয়ে গেলেই যে চুলে ভালো কোনো স্টাইলিশ ছাঁট দিতে পাড়বেন না তা তো নয়। এর চাইতে যদি ভালো কোনো মানানসই স্টাইলিশ ছাঁটে চুল কাটতে পারেন তবে বয়স অনেক কম লাগবে। যদি চুল পড়ে টাক হয়ে থাকে তবে একেবারে চুল ফেলে দিন। এতে টাকের তুলনায় বেশ স্টাইলিশ ও কম বয়েসি লাগবেন দেখতে।
ঠোঁটের যত্ন নিনঃ 
ঠোঁটের যত্নে সতর্ক হোন। ঠোঁট শুকনো দেখালে এবং ফেটে থাকলে অথবা কালচে ভাব থাকলে বিশ্রী দেখানোর পাশাপাশি বয়স্ক দেখায়। তাই নিয়মিত ঠোঁটের যত্ন নিন। ভালো লিপবাম ব্যবহার করুন। ধূমপান ছেড়ে দিন।
সাদা চুল ঢেকে ফেলুনঃ 
যদি চুল পেকে সাদা হওয়া শুরু করে তবে চুল রঙ করতে একবারেই পিছপা হবেন না। সতর্কতার সাথে সকল সাদা চুল ঢেকে ফেলুন। এতে বয়স প্রায় ১০ বছর কমে যাবে।
সুঠাম দেহের অধিকারী হোনঃ 
আপনার দেহ যদি ঢিলেঢালা গোছের হয়ে থাকে তবে আপনাকে অনেক বয়স্ক দেখাবে। তাই কম বয়সী দেখাতে চাইলে দৈহিক গড়নের প্রতি লক্ষ্য রাখুন। নিয়মিত ব্যায়াম করে শারীরিক গঠন সুঠাম রাখুন। এতে বয়স হলেও বোঝা যাবে না।




সঠিক পোশাক নির্বাচন করুনঃ 
সঠিক পোশাক নির্বাচন বয়স অনেকটা কমিয়ে দেয়ার ক্ষমতা রাখে। আপনাকে কোন ধরণের পোশাকে মানাবে এবং কোন রঙে আপনাকে ভালো দেখাবে এই সম্পর্কে সতর্ক থাকুন। সঠিক পোশাক নির্বাচন করলে বয়স অনেকটা কমে যাবে।
পিঠ সোজা করে দাঁড়ানঃ 
অঙ্গবিন্যাস সঠিক রাখুন। আপনি পিঠ বাকা করে দাঁড়ালে আপনাকে বয়স্ক মনে হবে। সোজা হয়ে দাঁড়ান এবং অভ্যাস করুন।
ত্বকের যত্ন নিনঃ 
ত্বক শুষ্ক ও রুক্ষ হয়ে গেলে বয়স অনেক বেশি মনে হয়। তাই ত্বককে হাইড্রেট ও ময়সচারাইজ করুন। ভালো ময়েসচারাইজার ব্যবহার করুন এবং প্রচুর পানি পান করুন।
‘বুড়ো হয়ে গিয়েছি’ এই চিন্তা বন্ধ করুনঃ 
সবশেষে আরও যে কাজটি করতে পারেন তা হলো বুড়ো হয়েছেন এই ধরণের চিন্তা বাদ দিন। আপনি নিজে মনের দিক থেকে তরুণ থাকলে তা আপনার চেহারায়ও ফুটে উঠবে।