মানানসই ব্যাগ বাহার

নব্বইয়ের দশক যেন আবার ফিরে এসেছে মেয়েদের ব্যাগের স্টাইলে। কাঁধে ঝোলানো লম্বা ফিতা বা চেইনের ব্যাগ হাল ফ্যাশনে বেশ চোখে পড়ছে। আকারে এই ব্যাগগুলো খুব একটা বড় হচ্ছে না কিন্তু ঝুলে থাকছে কোমর অবধি; এমন ফ্যাশনই চলছে এখন। ক্রস বডি ব্যাগ অথবা লং স্ট্র্যাপ ব্যাগ নামে এটি বেশি পরিচিত।

এখন দেখব মানানসই ব্যাগ বাহারঃ

ওপাল ফ্যাশন ওয়্যারের প্রধান নির্বাহী রুবাইজা দীপার মতে, এ ধরনের ব্যাগগুলো সব রকমের পোশাকের সঙ্গেই মানিয়ে যায়। তবে পোশাকের সঙ্গে ব্যাগের আকৃতি, রং ও নেওয়ার ধরনটাও বিবেচ্য। যেমন পশ্চিমা ঘরানার পোশাকের সঙ্গে এটি কাঁধে আড়াআড়িভাবে ঝুলিয়ে রাখলে দারুণ স্টাইলিশ দেখাবে। তবে আবার শাড়ির সঙ্গে এভাবে নিলে মানাবে না। আগে এই ব্যাগগুলো আকারে বেশ বড় হতো। বাজার ঘুরে দেখা গেল, এখন এর আকার কিছুটা কমে এসে মাঝারিতে ঠেকেছে।
এখন বেশ ট্রেন্ডি খাম আকৃতির ক্রস বডি ব্যাগও পাওয়া যাচ্ছে। এর সুবিধা হলো পছন্দমতো সময়ে এটি ঝুলিয়েও নেওয়া যাবে, আবার ফিতা খুলে ক্লাচের মতোও ব্যবহার করা যাবে। এ ধরনের ব্যাগের ফিতা তিন রকমের হতে পারে। ব্যাগ যেই উপাদানের ঠিক সেটির তৈরি ফিতা, অর্ধেক ব্যাগের উপাদানের ফিতা এবং অর্ধেক ধাতব আর নয়তো পুরোটাই ধাতব চেইন, জানালেন রুবাইজা দীপা। তরুণীরা সোনালি এবং অক্সি রঙের ধাতব চেইন লাগানো ক্রস বডি ব্যাগগুলোই এখন বেশি পছন্দ করছেন।
এখন ব্যাগে নানা উজ্জ্বল রঙের উপস্থিতি দেখা যাচ্ছে। হাল ফ্যাশনে কদর আছে প্রিন্টের ব্যাগেরও। ব্যাগের আকৃতি আর লক সিস্টেমের মাধ্যমেই মূলত ভিন্নতা প্রকাশ পাচ্ছে। চামড়া, কৃত্রিম চামড়া, রেক্সিন, কাপড় সব ধরনেরই পাওয়া যাবে। কাপড়ের ব্যাগগুলোতে পাথর, পুঁতি ও ধাতব অলংকরণ ব্যবহার করা হচ্ছে, যা ঐতিহ্যবাহী পোশাকের সঙ্গে মানানসই।
বাটার জ্যেষ্ঠ ব্র্যান্ড কর্মকর্তা আফরিন রহমানের সঙ্গে কথা বলে জানা গেল, এখন চড়া রঙের ব্যাগ চলছে। কালার ব্লকিংও এখন ট্রেন্ডি। লম্বা ফিতার ব্যাগ ব্যবহারের ক্ষেত্রে মেয়েরা তাঁদের উচ্চতা অনুযায়ী ফিতা ছোট-বড় করে নিতে পারছে। ইদানীং ব্যাগের ফিতা কোমর বরাবর রাখার স্টাইল চলছে। ফুলেল মোটিফ এবং চেক নকশার ব্যাগ বর্তমানে তরুণীরা পছন্দ করছেন বলে জানালেন আফরিন। অ্যানিমেল প্রিন্টের চাহিদাও আছে। তবে তাঁর মতে এগুলো ওয়েস্টার্ন, সেমি ওয়েস্টার্ন এবং ফরমাল পোশাকের সঙ্গেই মানাবে। ঐতিহ্যবাহী পোশাকের সঙ্গে মানাবে এক রঙের ব্যাগ এবং তা হওয়া চাই পোশাকের বিপরীত কোনো রঙের। পোশাক এক রঙের হলে ব্যাগ প্রিন্টের হলে ভালো দেখাবে। প্রিন্টের ব্যাগগুলো জাঙ্ক ধাঁচের গয়নার সঙ্গে মানাবে বলে মনে করেন রুবাইজা দীপা।
এ রকম ব্যাগ পাবেন বাটা, অ্যাপেক্স, সেলিব্রেশন, জেমস গ্যালারি, একস্ট্যাসি, ওপাল ফ্যাশন ওয়্যারসহ বিভিন্ন অনলাইন দোকান এবং যেকোনো বড় শপিং কমপ্লেক্সে।