শেষ ষোলোয় চোখ দুই পরাশক্তি স্পেন ও ইতালির

শেষ ষোলোর দৃষ্টি রেখে ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপে আজ রাতে ভিন্ন ভিন্ন ম্যাচে মাঠে নামছে দুই পরাশক্তি স্পেন ও ইতালি। ‘ডি’ গ্রুপের ম্যাচে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন স্পেনের প্রতিপক্ষ তুরস্ক। আর ‘ই’ গ্রুপে সুইডেনের প্রতিপক্ষ বর্তমান রানার্সআপ ইতালি। দুটি দলই নিজেদের প্রথম ম্যাচে জয় পেয়েছে। চারবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ইতালি সহজ জয় পেলেও গত দুই আসরের শিরোপাজয়ী স্পেনকে ঘাম ঝরাতে হয়।
তবে প্রথম ম্যাচের ভুলত্রুটি শুধরে আজই প্রি-কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত করতে চায় এবারের আসরের অন্যতম দুই ফেবারিট দল। টুলুজে জ¬াতান ইব্রাহিমোভিচের সুইডেনের বিপক্ষে খেলবে গতবারের রানার্সআপ ইতালি। নিজেদের প্রথম খেলায় রিপাবলিক অব আয়ারল্যান্ডের সঙ্গে ১-১ গোলে ড্র করায় ম্যাচটি জিততে মরিয়া সুইডিশরা। তবে ইতালির মতো পরাক্রমশালী দলের বিপক্ষে কাজটি যে হবে না সেটা বলাইবাহুল্য। তবু সুইডেন জয় ছাড়া কিছুই ভাবছে না। আর এ কারণেই সুইডিশদের সমীহ করেই ময়দানী যুদ্ধে নামার প্রস্তুতি ইতালির।
নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে স্পেন লড়বে তুরস্কের বিপক্ষে। প্রথম ম্যাচে ডিফেন্ডার জেরার্ড পিকের শেষ মুহূর্তের গোলে জয় পায় সবশেষ দুই আসরের চ্যাম্পিয়নরা। এ কারণে তুর্কীদের বিপক্ষে ছন্দে ফিরতে মরিয়া ভিসেন্টে ডেল বস্কের দল। ম্যাচটি জিতলেই শেষ ষোলোয় খেলা নিশ্চিত হবে ২০০৮ ও ২০১২ আসরের চ্যাম্পিয়নদের। নিজেদের প্রথম ম্যাচে ক্রোয়েশিয়ার কাছে হার মানা তুরস্কের জন্যও ম্যাচটি বাঁচামরার। নকআউট পর্বে খেলার স্বপ্ন বাঁচিয়ে রাখতে হলে হারলে চলবে না তাদের। কিন্তু সামনে যে রাঘব-বোয়াল। সেটিকে তুরস্ক কিভাবে সামাল দেয় সেটাই দেখার।
‘ডি’ গ্রুপের আরেক ম্যাচে মুখোমুখি হওয়ার অপেক্ষায় চেক প্রজাতন্ত্র ও ক্রোয়েশিয়া। দুটি দলের অবস্থা ঠিক আয়নার এপিঠ-ওপিঠ। ক্রোয়েটরা জয়ে মিশন শুরু করলেও হেরে যাত্রা শুরু হয়েছে চেকদের। যে কারণে আজকের ম্যাচটি চেক প্রজাতন্ত্রের জন্য অনেকটাই বাঁচামরার। রিয়াল মাদ্রিদ তারকা লুক মডরিচের গোলে প্রথম ম্যাচ জেতা ক্রোয়েশিয়া আছে বেশ ফুরফুরে মেজাজে। নকআউট পর্বে খেলার স্বপ্ন নিয়ে মিশন শুরু করা দলটি চেকদেরও হারাতে চায়।
বড় আসর মানেই অবধারিতভাবে ফেবারিটের তকমা থাকে ইতালির গায়ে। বহুবার এ প্রমাণ দেখিয়েছে আজ্জুরিরা। ২০০৬ সালে আলোচনার বাইরে থেকেও বিশ্বকাপ জয় এর সবচেয়ে বড় দৃষ্টান্ত। এবার ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপ শুরুর আগেও চারবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের নিয়ে খুব একটা উচ্চবাচ্য হয়নি। কিন্তু সেটা যে ভুল, সে প্রমাণ নিজেদের প্রথম ম্যাচেই রেখেছে ইতালি। বর্তমান ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ের দুই নম্বর দল বেলজিয়ামকে প্রথম ম্যাচেই ২-০ গোলে হারিয়েছে জিয়ানলুইজি বুফনের দল। এক জয় দিয়েই নিজেদের শিরোপার দাবিদার করে তুলেছে তারা। সুইডেনকে আজ হারাতে পারলেই শেষ ষোলোর হাতছানি। সুযোগটা কাজে লাগাতে বদ্ধপরিকর আজ্জুরির।
সুইডেন যে কোন মুহূর্তে ভয়ঙ্কর হয়ে উঠতে পারে। কারণ দলটিতে আছে ইব্রাহিমোভিচের মতো তারকা। বিষয়টি মাথায় রেখে ইতালিয়ান উইঙ্গার এ্যান্টোনিও কনড্রেভা বলেন, ইব্রাহিমোভিচের ক্ষমতা আছে একটা দলকে চাপে রাখার। তবে আমরা শুধু নিজেদের খেলা নিয়েই ভাবছি। আশা করছি সফল হতে পারব। ইতালি কোচ এ্যান্টোনিও কন্টেও ইব্রাকে প্রশংসায় ভাসিয়েছেন। প্রথম ম্যাচের পারফর্মেন্সে মোটেও সন্তুষ্ট হতে পারেননি সুইডিশ কোচ এরিক হামরেন। তিনি বলেন, ওই ফলাফলটা (আয়ারল্যান্ডের সঙ্গে ড্র) ছিল বিরক্তিকর। এখন আমাদের পেছনে তাকালে চলবে না। প্রয়োজনে নিজেদের শতভাগেরও বেশি নিংড়ে দিতে হবে।
তুরস্কের বিপক্ষে জয় ছাড়া কিছুই ভাবছে না স্পেন। দলটির স্ট্রাইকার আরিটজ আডুরিজ বলেন, আমাদের কাছে তিন পয়েন্টের গুরুত্ব অনেক বেশি। এ লক্ষ্যেই খেলব আমরা। যে কোন দলের জন্য প্রথম ম্যাচ গুরুত্বপূর্ণ। আমরা সে ধাপ পেরিয়েছি। স্পেন কোচ ডেল বস্ক জানিয়েছেন, তুর্কীদের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচের ভুলত্রুটি শোধরানোই হবে তার প্রধান কাজ।